মাধবপুরে মনতলা করিমশাহ রাস্তাটি দেড় বছরেও শেষ হয়নি রাস্তার কার্পেটিংয়ের কাজ

Ads

আজ ১৩ই আগষ্ট রোজ বৃহস্পতিবার হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলার মনতলা করিমশাহ মাজার রাস্তার পাকাকরনের কাজ দেড় বছরেও শেষ করতে পারেনি একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। বার বার কাজ শেষ করার তাগিদ দিলেও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কোন কর্ণপাত করেনি। এ কারণে স্থানীয় এলজিইডি অফিস কাজটি বাতিলের জন্য চিঠি দিয়েছে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট।

দেড় বছরেও কাজটি শেষ না হওয়ায় স্থানীয় লোকজন চরম ভোগান্তির মধ্যে পড়েছেন।

মাধবপুর উপজেলা প্রকৌশলী ( এলজিইডি) জুলফিকার হায়দার চৌধুরী সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, মেসার্স ভাওয়াল কনস্ট্রাকশন নামে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ৫৮ লাখ চুক্তি মূল্যে রাস্তাটি কার্পেটিং কাজ সম্পাদন করার চুক্তিবদ্ধ হন। ২০১৮ সালের ৬ অক্টোবর বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট মাহবুব আলী রাস্তাটির ভিত্তিপ্রস্তর কাজের উদ্বোধন করেন।

তিনি বলেন, ২০১৯ সালের ২৬ শে মার্চের মধ্যে ১ হাজার মিটার রাস্তার কার্পেটিং কাজ শেষ করার কথা । কিন্তু ওই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কিছু ইট ও কংক্রিটের কাজ করে বাকি কাজ বন্ধ করে দেয়।বার বার কাজটি নির্দিষ্ট সময়ে শেষ করার জন্য তাগাদাপত্র দিলেও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কোন গুরুত্ব দেয়নি। অবশেষে কাজটি বাতিল করার জন্য প্রধান নির্বাহী প্রকৌশলীর নিকট চিঠি লিখা হয়েছে। এ প্রতিষ্ঠানকে আমরা আর কাজ করতে দিব না।

ওই এলাকার বাসিন্দা সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম শিপন জানান, এ রাস্তাটি দিয়ে ১০টি গ্রামের লোকজন চলাচল করে। রাস্তাটির কিছু অংশে নামে মাত্র কিছু কংক্রিট দেওয়া হলেও গাড়ি চলা চলের কারণে কংক্রিট গুলো গুড়ো হয়ে মাটির সঙ্গে মিশে গেছে।দেড় বছর হলেও কার্পেটিংয়ের কাজ শুরু হয়নি। সামান্য বৃষ্টি হলে রাস্তাটি কর্দমাক্ত হয়ে যায়। বয়স্ক লোকজন ও রোগীদের চলাচল করতে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়।

ভাওয়াল কনস্ট্রাকশনের মালিক বাচ্চু মিয়া জানান, বৃষ্টি বাদলের দিন হওয়ায় কাজ করা যাচ্ছে না। বৃষ্টি বাদল না থাকলে কাজ শুরু হবে।

Ads
আরও পড়ুন
Loading...