মাত্র ২ বছরেই এলাকাবাসীর মন জয় করেছে সৈয়দপুরের মহিলা কাউন্সিলর সাবিয়া সুলতানা

Ads

বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছিলেন সাবিয়া সুলতানা। তেমনিভাবে মাত্র ২ বছরেই মায়ের মতই এলাকাবাসীর মন জয় করতে সক্ষম হয়েছেন তার নিবেদীত প্রাণ কার্যক্রম ও আন্তরিক সহযোগিতার মাধ্যমে। ওই তিন ওয়ার্ডের ভোটার নারী-পুরুষসহ আবালবৃদ্ধবণিতা সকলের মুখে এখন তারই নাম। যখন যেখানে যার প্রয়োজন খবর পাওয়া মাত্রই তিনি ছুটে যান এবং সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন তার সাধ্য অনুযায়ী। একারণে তার প্রতি এলাকার জনগণ অত্যন্ত খুশি এবং আগামীতে আরও বিপুল পরিমানে ভোট দিয়ে তাদের প্রতিনিধি নির্বাচনে প্রতিশ্র“তিবদ্ধ। কেননা বিগত দিনগুলোতে তার মা যেভাবে তাদের সার্বিক প্রয়োজনে উদার মনে এগিয়ে এসেছেন তেমন করেই সাবিয়া সুলতানাও তাদের পাশে দাড়িয়েছেন সব সময়। যা অনেক নির্বাচিত প্রতিনিধিরা ৫ বছরেও করে উঠতে পারেন না। পৌর মেয়র অধ্যক্ষ মোঃ আমজাদ হোসেন সরকারের অনুপ্রেরনায় স্বল্প সময়েই এলাকার বিভিন্ন উন্নয়ন কাজ করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন তিনি। তাই তাকে ওয়ার্ডবাসী আপন করে নিয়েছেন তাদের প্রতিনিধি হিসেবে। বিশেষ করে তরুণ প্রজন্মের নতুন ভোটার ও প্রবীণ নারী ভোটারদের মাঝে যেন তিনি এখন একমাত্র ভরসার স্থল। নিজে সরকার প্রদত্ব সামাজিক নিরাপত্তা সহায়তা বয়স্ক, বিধবা, প্রতিবন্ধি ও মাতৃত্বকালীন ভাতা প্রদানের জন্য তালিকা প্রণয়নের সুযোগ না পেলেও তার মায়ের করে যাওয়া কাজের ফলে এসব ভাতার কার্ডপ্রাপ্ত সুবিধাভোগীদের মাঝে যথার্থভাবে কার্ড পৌছে দেয়াসহ অর্থ উত্তোলনে যাবতীয় সহযোগিতা করেছেন তিনি। যার ফলে তার বিরুদ্ধে কার্ড ইস্যূ করা বা তালিকায় নাম অন্তর্ভূক্তিকরণের নামে অর্থ আদায়ের কোন অভিযোগ যেমন উঠেনি তেমনি নিস্বাার্থভাবে নিবেদীত প্রাণ হয়ে কাজ করায় তার প্রতি মানুষের ইতিবাচক ধারণা সৃষ্টি হয়েছে। যেখানে সাবেক কাউন্সিলর রাজিয়া খাতুন মারা যাওয়ার সুযোগে অনেকে বিভিন্ন ভাতা কার্ড করে দেয়ার নামে বিভিন্ন জনের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে এবং উপজেলা সমাজসেবা অফিসের কতিপয় দূর্নীতিবাজ কর্মচারীর সাথে যোগসাজসে অনিয়মতান্ত্রিকভাবে দরিদ্র অসহায় ব্যক্তির পরিবর্তে স্বচ্ছল ও বিত্তবানদের নামে কার্ড করিয়ে দিয়ে নিজেদের পকেট ভরেছে। সেখানে সাবিয়া সুলতানা ওই অনিয়মগুলো ধরিয়ে দিয়ে এবং প্রকৃত দুস্থদের মাঝে পরিবর্তন করে কার্ড ইসূ্যুর ব্যবস্থা করে জনপ্রতিনিধির দায়িত্ব পালনে জনগণের কাঙ্খিত উপমা হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন।

Ads
আরও পড়ুন
Loading...