চাঁপাইনবাবগঞ্জে সফল উদ্যোক্তা ফল চাষী মিলন

Ads

সেতাউর রহমান ,চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার কানসাট মোহনবাগ সাগরপাড়ায় পারিবারিকভাবে ভিটামিন-সি সমৃদ্ধ ড্রাগণ ফলের চাষ করে বেশ সফলতা অর্জন করেছেন আতিকুর রহমান মিলন। তিনি এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ থেকে মাষ্টার্স পাশ করে চাকুরী নামে সোনার হরিণের পিছনে না ছুটে ব্যবসা ও কৃষিকাজকে বেছে নিয়ে বেশ সফলতা অর্জন করেছেন। তাঁকে অনুসরণ করে অনেকেই আগ্রহী হয়ে মাল্টা, পেয়ারা, বরই গাছের বাগান তৈরী করে নিজের জীবনের বেকারত্ব ঘুঁচিয়েছে। আতিকুর রহমান মিলন জানান, পারিবারিকভাবে ১৫ কাঠা জমিতে ড্রাগণ চাষ করেছি। “যত্ন করলে রত্ন মিলে” সময়মতো গাছের খাবার, প্রাকৃতিক উপায়ে তৈরী কীটনাশক ও বালাইনাশক প্রয়োগসহ সার্বিক পরিচর্যা করা হচ্ছে। এটি স্বাস্থ্য সম্মত কীটনাশক মুক্ত ফল। এখানে প্রায় ৮০ হাজার টাকা খরচ করে পরিবারের চাহিদা মিটানোর পর প্রথম মৌসুমে বাজারে ফল বিক্রী করে খরচের প্রায় সিংহভাগ টাকা উঠে এসেছে। আগামীতে বাংলাদেশ ফল ভান্ডার দেশে রুপান্তরিত হবে এই আশা রাখছি। আমার পরামর্শ নিযে ৮-১০ জন ফলের বাগান করেছে। এছাড়াও আমার উদ্যোগে তিনজন কেঁচো কম্পোষ্ট সার তৈরী অব্যাহত রেখে লাভবান হয়েছে। চাঁপাইনবাবগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী পুঠিমারির বিলে ভবিষ্যতে পর্যটন এলাকা হিসেবে গড়ে তোলার স্বপ্ন নিয়ে এখানে “ ন্যাচারাল সেভ” ব্যানারে ৭ কিলোমিটার এলাকা জুড়ে রাস্তার দুই ধারে প্রায় ৩ হাজার ২৫০টি তাল গাছের বীজ বপন করেছেন তিনি। এছাড়াও আতিকুর রহমান চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার নাচোর থানায় প্রায় ৫০০ বিঘা জমি লিজ নিয়েবারোমাসি আম, পেয়ারা, মাল্টা, কমলা, ড্রাগণসহ লাভজনক বিভিন্ন ফলের চাষাবাদ করে সফলতা অর্জন করেছেন।

Ads
আরও পড়ুন
Loading...