কোটি কোটি টাকার লোকসান, দ্রুত খুলে দিতে হবে মাল্টিপ্লেক্স

Ads

দেশের মানুষের অর্থনৈতিক উন্নতির সঙ্গে রুচিতে এসেছে পরিবর্তন। তারা সুন্দর ও আরামদায়ক পরিবেশে ছবি দেখতে চায়। সেই চাহিদার সঙ্গে তাল মিলিয়ে দেশে তৈরি হয়েছে বেশ কয়েকটি মাল্টিপ্লেক্স। দিন দিন ছবিপ্রেমীদের কাছে তা জনপ্রিয়ও হয়ে উঠেছে। প্রযোজক–পরিচালকেরাও মাল্টিপ্লেক্সের কথা ভেবে ছবি বানাচ্ছেন। কিন্তু করোনায় বিপুল ক্ষতির মুখে পড়েছে এই সেক্টর। সরকার এদিকে নজর না দিলে মাল্টিপ্লেক্স বন্ধ করে দেওয়ার কথাও ভাবছেন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা। স্টার সিনেপ্লেক্স প্রতি মাসে দেড় থেকে দুই কোটি টাকা ক্ষতি গুনছে। গেল পাঁচ মাসের বেশি সময় ধরে এভাবেই চলছে। শপিং মল কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন জানিয়ে স্টার সিনেপ্লেক্সের চেয়ারম্যান মাহবুব রহমান বলেন, সেন্সর পাওয়া সিনেমাগুলো দ্রুত মুক্তি দেওয়ার ব্যবস্থা করে দিতে হবে। শুধু সিনেমা হল খুললেই হবে না, নতুন ছবি মুক্তি না পেলে দর্শক হলে আসবেন না। যমুনা গ্রুপের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার জাহিদ হোসেন চৌধুরী বললেন, ‘আমরা খুব ঝামেলায় আছি। যত দ্রুত প্রেক্ষাগৃহ খুলে দেবে, তত ভালো। প্রেক্ষাগৃহের মালিক, নির্মাতা, প্রযোজক, দর্শক ও সিনেমার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অন্যরা—সবার প্রাথমিক চাওয়া একটাই, যত দ্রুত সম্ভব খুলে দিতে হবে মাল্টিপ্লেক্স।

Ads
আরও পড়ুন
Loading...