এবার আরেক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ সেই যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে

Ads
নোয়াখালীর চাটখিল উপজেলার নোয়াখলা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডে হত্যার ভয় দেখিয়ে অস্ত্রের মুখে প্রবাসীর স্ত্রীকে (২৯) ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্ত যুবলীগের বহিষ্কৃত নেতা শরীফ বাহিনীর প্রধান মজিবুর রহমান শরীফ (৩২) এর ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।তাকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে।এরই মধ্যে তার বিরুদ্ধে রাতের আঁধারে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে ধর্ষণের অভিযোগ এনে আরও এক গৃহবধূ (২৭) থানায় অভিযোগ দিয়েছেন।
শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) রাতে ওই গৃহবধূর লিখিত অভিযোগটি চাটখিল থানায় রাত ১১টায় ধর্ষণ মামলা হিসেবে নথীভুক্ত করেছে পুলিশ।চাটখিল থানার ওসি মোঃ আনোয়ারুল ইসলাম মামলা দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
গৃহবধূর দায়ের করা অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, চাটখিল উপজেলার নোয়াখলা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা ওই নারীর স্বামী ঢাকায় ব্যবসা করার সুবাদে তার নাবালক ছোট ভাই,এক মেয়ে ও এক ছেলেকে নিয়ে বাড়িতে একা বসবাস করেন।২০১৮ সালের ১৫ ডিসেম্বর তার ছেলে-মেয়ে নানার বাড়িতে বেড়াতে গেলে ওইদিন রাতে খাওয়ার খেয়ে ছোট ভাইসহ ঘুমিয়ে পড়েন গৃহবধূ।রাত প্রায় ২টার দিকে মজিবুর রহমান শরীফ গৃহবধূর ঘরের জানালার কাঁচ ভেঙে তার দিকে অস্ত্র ধরে দরজা খুলতে বলেন।কিন্তু ওই গৃহবধূ দরজা খুলতে অপারগতা প্রকাশ করার সঙ্গে সঙ্গে শরীফ ঘরে ভিতর তার আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে দুই রাউন্ড গুলি ছুঁড়েন।এতে নিরুপায় হয়ে ভয়ে ওই গৃহবধূ দরজা খুলে দেন।এরপর শরীফ ঘরে ঢুকে গৃহবধূর ভাইকে ওড়না দিয়ে অন্য একটি কক্ষে নিয়ে হাত-পা খাটের সঙ্গে ও গামছা দিয়ে মুখ বেঁধে রাখেন।পরে শরীফ গৃহবধূকে অস্ত্রের মুখে ধর্ষণ করেন এবং যাওয়ার সময় কাউকে কিছু বললে হত্যার হুমকিও দিয়ে যান। ঘটনাটি ওই নারী তার স্বামীকে বললেও শরীফ প্রভাবশালী,অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী হওয়ায় তিনি ভয়ে কাউকে ঘটনাটি জানাননি।গত বুধবার শরীফ প্রবাসীর স্ত্রীকে ধর্ষণের ঘটনায় দায়ের করা মামলায় পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হওয়ার খবর শুনে ওই নারী থানায় এসে তাকে ধর্ষণের বিষয়ে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।এ ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।
Ads
আরও পড়ুন
Loading...